Header Ads

Header ADS

গুগল (Google) সম্পর্কে ১০ টি অজানা তথ্য!

গুগল (Google) সম্পর্কে না জানা অবাক করা ১০ টি তথ্য!

গুগল অফিস

গুগল এখন আমাদের জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। বর্তমানে ইন্টারনেট জগতের প্রায় ৯০ ভাগ দখল করে আছে গুগল,  ধরুন হঠাৎ করে আপনার কোন অজানা প্রশ্নের উত্তর জানতে ইচ্ছে হলো তখনি আমরা গুগলকে স্বরন করি, বর্তমানে পৃথিবিতে সবচেয়ে বড় ও শ্রেষ্ঠ সার্চ ইঞ্জিন হলো গুগল, এ ছারা অন্য যেসব সার্চ ইঞ্জিন আছে এগুলো আমরা তেমন ভিজিট করিনা, হয়তো আনিও করেননি। আমরা  গুগল এতো বেশি ব্যাবহার করি  হয়তো আপনিও আমার এই পেষ্ট গুগলে সার্চ করেই পেয়েছেন। আমাদের জন্য গুগল শুধু সার্চ ইঞ্জিন নয় এটি হয়ে উঠেছে এক তথ্য ভান্ডার যেখানে আপনি যেকোন বিষয় সার্চ  করলে উত্তর পেয়ে যাবেন সারাসরি উত্তর না পেলেও আপনার করা সার্চ সম্পর্কে কোন একটা ধারনা হলেও পাবেন, কিছিু কিছু সময় এই ধারনাটুকুও আমাদের অনেক উপকারে আসে। আমাদের মনে এই প্রশ্ন প্রায়ই আসে গুগল কত বড়? আসলে গুগল অনেক বড়, গুগল এতোটাই বড় আমরা যেমটা ভাবতে পারি তারচেও অনেক বড়।


ল্যারি পেইজ ও সার্জিও ব্রিন
একদম শুরুর দিকে প্রতি সেকেন্ডে গুগল প্রয় ৩৫টি অনুসন্ধ্যানের ফলাফর দেখাতে পারতো, বর্তমানে গুগল প্রতি সেকেন্ডে গড়ে প্রায় ৪০ হাজার সার্চ ফলাফল দেয় আর প্রতিদিন প্রায় ৫.৬ বিলিয়ন সার্চ রিকয়েস্ট এর ফলাফল দেয় যা পৃথিবীতে বিরল রেকর্ডও বটে! পৃথিবীতে এখনস পর্যন্ত কোন সার্চ ইঞ্জিন এতো বেশি সার্চ রিকয়েস্ট হ্যান্ডের করতে পারেনি! গুগলে রয়েছে অ্যান্ডয়েড প্লেস্টর যেখানে প্রায় ৩৯৭০০০০ মোবাইল অ্যাপ সংক্রীয় রয়েছে এবং বর্তমান অ্যাপ গুলোর প্রায় ৭০% নিয়মিত ব্যাবহার হয়ে আসছে।    আমরা যখন প্রতিবার গুগলে সার্চ করি তখন গুগল আমাদের পছন্দ-অপছন্দ এবং আমাদের অভ্যাস সম্পর্কে কিছুটা হলেও যেনে যায়, কিন্তু আপনি আমি গুগল সম্পর্কে কতটা জানি? আজকে আমরা এই পোষ্টে গুগল সম্পর্কে এমনি কিছু অজানা তথ্য জানবো যা দেকে আপনি অবাক হয়ে যাবেন!
  • গুগলের শুরুটা হয়েছিলো ১৯৯৬ সালে দুই বন্ধু “ল্যারি পেইজ এবং সার্জিও ব্রিন” (Larry Page ‍and Sergey Brin) এর হাত ধরে ক্যালিফোর্নিয় স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় এই দুজনের রিচার্জ প্রজেক্ট হিসেবে গুগলের পদযাত্রা শুরু হয়। 
  • সর্বপ্রথম গুগল সার্চ ইঞ্জিনের নাম ছিলো backrub (ব্যাকবার)  এই নাম দেওয়ার কারন এই সার্চ ইঞ্জিনটি যেকোন সাইট এর ব্যাক লিংক থেকে ডাটা সংগ্রহ করেই সার্চ রেজাল্ট দেখাতো , এবং পরবর্তিতে তাদের সার্চ ইঞ্জিনের নাম চেঞ্জ করে google রাখাহয়। ১৯৯৭ সালে তারা google.com ডমেইনটি কিনে নেয়।
  •  আপনার হয়তো জানতে ইচ্ছে হতেই পারে গুগল নাম কেনো হলো বা এটি কোথা থেকে এলো এর মানে কি? আসলে এর কোন মানেই নেই! গুগল (Google) যার মানে হলো ১ এর পরে ১০০ শূন্য। 
  • গুগল তাদের প্রতিষ্ঠানে চাকুরি দেওয়ার ক্ষেত্রে সার্টিফিকেটকে তেমন গুরুত্ব দেয়না তারা বাস্তব অভিজ্ঞতা বা দক্ষতাকে বেশি প্রাধান্য দেয়, গুগলে কর্মরত কর্মচারীদের মাধ্যে ১৫% লোক কখনো কলেজেই যায়নি।
  • মজার একটি তথ্য জানলে আবাক হবেন! গুগল হেডঅফিস এরিয়ায় ভিতর যে মাঠ রয়েছে তার ঘাস কাটার জন্য তারা কোন ঘাস কাটার মেশিন ব্যাবহার করেনা  এই ঘাস পরিস্কার করার  জন্য তারা ২০০ টি ছাগল ভাড়া করে এবং ছাগলই এই ঘাস সব ঘাস খেয়ে সাবার করে।
  • বর্তমানে এই সাইটটি আপনি যদি কম্পিইটার দিয়ে ভিজিট করে থাকেন তাহলে প্রথমে আপনি www.google.com/images এই ঠিকানায় ভিজিট করুন এবং এর পর  “atari breakout” লিখে সার্চ করুন, আমরা সবাই জানি এটা একটা গেমসের নাম। ataria breakout লিখে সার্চ করলে গেমটি আপনি আপনার ব্রাউজারেই খেলতে পারবেন। বিস্বাশ না হলে এখনি সার্চ করুন এবং মজা দেখুন!
  • গুগলে প্রতিদিন গরে প্রায় ১৬% এমন কিছু নতুন তথ্য সার্চ করা হয় যা এর আগে আর কখনোই গুগলে সার্চ করা হয়নি। 
  • এখন পর্যন্ত প্রায় ষাট ট্রিলিয়ন সাইট  গুগল ডট মক (google.com) এ  ইন্ডেক্স করা আছে।
  • যদিও গুগলের যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৬ সালে তবে গুগল বিশ্বের সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে স্বীকৃতি পায় ২০০০ সালের জুন মাসে।
  • প্রতি বছর এপ্রিল মাসের প্রথম দিনে অবাক করা এক কায়দায় তাদের কর্মীদের সাথে এপ্রিল ফুল উদযাপন করে, এভাবেই ২০০৪ সালে প্রথম জিমেইল চালু করা হয় তখন তারা  এই বিষয়টি বিস্বাশ করতে পারেনি তারা ভেবেছিলো এটাও হয়তো এপ্রিল ফুল প্রংক।
  এই ছিলো গুগল সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য, এছারা গুগল সম্পর্কে আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন আবশই প্রশ্নের উত্তর পাবেন।


আজ এ পর্যন্তই, ভালো থাকবেন সবাই আল্লাহ্ হাফেজ।

No comments

Powered by Blogger.