Header Ads

Header ADS

জেনে নিন ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক হয় কি কারনে?

জেনে নিন ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক হওয়ার কারন কি!

যতো গুলো সোস্যাল মিডিয়া আছে এর মধ্যে বর্তমান সময়ে সবচেয়ে বেশি জনপ্রীয় ও যে মধ্যমটি আমরা সবাই ব্যাবহার করি সেটি হলো ফেসবুক। ফেসবুকতো এখন আমাদের জন্য হাজারো বন্ধুদের আড্ডাখানা, প্রতিদিন অন্তর একবার ফেসবুক না দেখলেতো চলেইনা, কেউতো আবার যেভাবে হোক সারাদিনই ফেসবুকেই কানেক্ট থাকে, কেউ আবার কাজের ফাকে কয়েক সেকেন্ডের জন্য একবার নটিফিকেশনটা চেক করে আসে।

 আমরা যারা ফেসবুক ইউজ করি আমরা সবাই একটি কম বেশি একটি শব্দের সাথে পরিচিত সেটি হলো হ্যাকিং আমাদের সবার ভিতরে  সবসময় একটা ভয় কাজ করে কখন যেনো আমার আইডিটি হ্যাক হয়ে যায়। কিছুদিন ধরে হ্যাকারদের তৎপরতা বেরেছে হ্যাকাররা অনেক আইডি হ্যাক করেছে এর মধ্যে কারো আইডি ফেরত পেয়েছে আর কারো পাওয়া যায়নি। এভাবেই  হ্যাক হতে পারে আপনার ফেসবুক আইডিও, হ্যা আপনি ঠিকই শুনেছেন আপনার অসতর্কতার কারনে আপনার ফেসবুক আইডিটি হ্যাক হতে পারে। তবে আমরা কিছু সতর্কতা ও কিছু সেটিং এর মাধ্যমে হ্যাকারদের হাত থেকে রেহাই পেতে পারি।
চলুন এবার জেনেনেই ফেসবুক এ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার কারন কি বা কিভাবে এবং কেনো হ্যাক হয়!

আমরা জেনে না জেনো, বুঝে না বুঝে হ্যাকারদের ট্রাপে পা দেই, আমাদের না বোঝা বা আমাদের সরলতাকে কাজে লাগিয়ে হ্যাকররা ফায়দা নেয়।

জেনে নিন ফেসবুকে একটি স্টং পাসওয়ার্ড কিভাবে সেট করবেন? এখানে ক্লিক করুন

১। ফিশিং পদ্ধতিঃ
 ফেসবুক  হ্যাক করার একটি সহজ  পদ্ধতি হলো ফিশিং , এর মাধ্যমে হ্যাকার আপনার বন্ধু হয়ে ফেসবুকে মেসেজ করে বা আপনার ম্যাসেঞ্জারে একটি লিংক পাঠাবে ঐ লিংকে লেখা থাকবে এই ভিডিওটি খুব সুন্দর অথবা বলতে পারে মাত্র দশ হাজার টাকায় আই ফোন কিনুন এছারাও আরো অনক লোভনিয় অফার  আপনাকে দিয়ে থাকবে যাতে আপনি ঐ লিংকে ক্লিক করতে অগ্রহী হন। আর আপনি যদি শত্যি ঐ লিংকে ক্লিক করেন তখন দেখতে পাবেন হুবহু ফেসবুকের মতো একটি পেজ  আপনার সামনে শো করবে তখন আপনি হয়তো ভাববেন এটা কিনতে হরে বা এই অফারটি নিতে হলে এখানে লগইন করা লাগবে, লগেই করছেন তো মরছেন! তাহলেই আপনার এ্যাকাউন্টের সব তথ্য চলে যাবে হ্যাকারের হাতে!  ভূলেও এইসব সাইটে আপনার ফেন নাম্বার, ইমেল, পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করবেননা।

২। ভূয়া ফেসবুক অ্যাপঃ 
Play Store এ Facebook লিখে সার্চ করলে অনেক  অ্যাপ পাবেন যেগুলো দিয়ে আপনি ফেসবুক  ব্যাবহার করতে পারবেন, আসলে এগুলো ভূয়া অ্যাপ কখনোই এইসব ফালতু অ্যাপে ফেসবুক ব্যাবহার করবেনা। ফেসবুকের অফিসিয়াল অ্যাপ ব্যাবহার করবেন।
৩। থার্টপার্টি ওয়েব সাইট থেকে অটো লাইক নেওয়াঃ
আমরা অনেকেই ফেসবুকে আপলোডকৃত  কোন ফটো বা স্টাটাসে অটে লইক নেওয়ার চেষ্টা করি,  এমন অনেক তৃতীয় পক্ষ ওয়েব সাইট আছে যেখান থেকে হাজার হাজার লইক মসেন্ট শোআপ করা যায় এই কাজগুলো করা য়াবেনা।

জেনেনিন আপনার ফোনে চার্জ থাকেনা কেন? এবং এর সমাধান কি? এখানে ক্লিক করুন

৪। ফানি গেমস্ ব্যাবহারঃ
ফেসবুকে এমন অনেক ফানি গেমস্ আছে যেমন ধরুন আপনার সাথে কোন নায়ক এর সাথে মিল  আছে, ১০ বছর পর আপনি কত টাকার মালিক হবেন, ২৫ বছর পর আপনি দেখতে কেমন হবেন ইত্যাদি ইত্যাদি। এই ধরনের বিনদন মূলক সাইটে লগইন করা যাবেনা।

৫। পেইড অ্যাপ ফীতে ব্যাবহার করাঃ
আমরা অনেক সময় এমন কিছু অ্যাপ ব্যাবহার করি যেটি Play store থেকে অ্যাপটি  ইনেস্টল করতে হলে ডলার $ দিয়ে কিনে ব্যাবহার করতে হয়।  একই অ্যাপ থার্ডপার্টি ওয়েবসাইটে আপনাকে ফ্রী দিবে, এগুলো ব্যাবহার করা যাবেনা কারন আপনি একটু ভাবুন যেই অ্যাপটি Play store থেকে কিনে ব্যাবহার করতে হয় সেটি তারা আপনাকে ফ্রী প্রভাইট করতেছে এর কারন কি?

এরপরে আর বলার কিছু থাকেনা, অবস্যই আপনারা বুঝতে পারছেন আপনাদের কি করা উচিত আর কি করা উচিন না।

সবশেষে বলবো সবই একটু সতর্ক থাকুন এবং হ্যাকারদের হাত থেকে নিজেকে সুরক্ষিত  রাখুন।

কিভাবে আপনার ফেসবুক আইডি হ্যাকারদের হাত থেকে রক্ষা করবেন এই বিষয় যানতে ওয়েবসাইট টি ভিজিট করুন অথবা এই লিংকে (লাল লেখায়) ক্লিক করুন।

No comments

Powered by Blogger.